UPS কি ? ইউপিএস সম্পর্কে জানুন

 আজকের পোস্টটি সবার জন্য গুরুত্বপূর্ণ। আমাদের দৈনন্দিন জীবনে ইলেকট্রিকের ব‍্যবহার অনেক বেড়ে গেছে। আমরা ইলেকট্রিক অর্থাৎ বিদ্যুৎ ছাড়া আমাদের প্রযুক্তির কোনো কাজ করতে পারবনা।তাই ইলেকট্রিকের সাথে জড়িত ইউপিএস সম্পর্কে আলোচনা করব। ইউপিএস শব্দটি সবাই শুনে না থাকলেও যারা কম্পিউটারের সাথে জড়িত বা কম্পিউটার ব‍্যবহারকারী সকলেই জানেন । 

ইউপিএস কি ? ইউপিএস এর ব‍্যবহার
UPS কি

আমরা জানি কম্পিউটার চালাতে ইলেকট্রিকের ব‍্যবহার করা হয়। কিন্তু কম্পিউটার চলাকালীন বিদ্যুৎ চলে গেলে কম্পিউটার সরাসরি Shut down হয়ে যায়। কেউ গুরুত্বপূর্ণ কাজ করলে ডাটা Save না হওয়ার কারণে তার অনেক ক্ষতি হয়ে যায়। এই ক্ষতি এড়ানোর জন্য কম্পিউটার ব‍্যবহারকারীরা UPS ( ইউপিএস ) ব‍্যবহার করে থাকে। বিদ্যুৎ চলে যাওয়ার পর ইউপিএস কম্পিউটারকে Shutdown হওয়া থেকে বিরত রাখে। এতে কম্পিউটারের ডাটা Save থাকে। UPS থাকলে কম্পিউটার ব‍্যবহারকারীর কাজ করার সময় কোন চিন্তা থাকে না। নিশ্চিন্তে কাজ করা যায়।

বর্তমানে প্রায় প্রত‍্যেক বাড়িতে বিদ্যুতের ব‍্যবহার হয়ে থাকে। এর মধ্যে অনেক বাড়িতে অবিরত বিদ্যুৎ পাওয়ার জন্য Inverter এর use করে। বিদ্যুৎ চলে গেলেও Inverter back up  দিয়ে থাকে।এই ইনভার্টার ঠিক ইউপিএস এর মতোই। এটা সাধারণ UPS এর থেকে বেশি watt এর হয়ে থাকে। 

আমাদের দৈনন্দিন জীবনে বিদ্যুৎ ব‍্যবহার করতেই হয়। ফ‍্যান, ফ্রীজ, বাল্ব বাড়ির আরও অনেক ইলেকট্রিকের যন্ত্রপাতির জন্য বিদ‍্যূতের প্রয়োজন। কিন্তু এগুলো নিরন্তর চালানোর প্রয়োজন হয় না। তাই কিছুক্ষণের জন্য বিদ্যুৎ চলে গেলে খুব সমস্যার সম্মুখীন হতে হয় না। কিন্তু যারা কম্পিউটারে কাজ করে তাদের জন্য বিদ্যুৎ সংযোগ বিচ্ছিন্ন হওয়া খুবই সমস্যার সৃষ্টি করে। প্রত‍্যেক Computer ব‍্যবহারকারীর UPS থাকা আবশ্যিক।আজকে আপনাদের জানাব ইউপিএস ( UPS ) ? ইউপিএস এর ব্যবহার এবং UPS কত প্রকারের বা ধরনের হয় ?  

UPS ( ইউপিএস) কি ?

ইউপিএস এমন একটা ইলেকট্রিক যন্ত্র যেটা বিশেষ ভাবে কম্পিউটারে ব‍্যবহারের জন্য তৈরি করা হয়েছে। এর মধ্যে একটা ব‍্যাটারী থাকে। এই DC ব‍্যাটারী AC বিদ‍্যূতের দ্বারা charging হয়ে AC বিদ্যুৎ Supply করে। UPS এর Energy এর উৎস Battery, যার সাহায্যে কম্পিউটার চালানোর জন্য বিদ্যুৎ  সরবরাহ করে।

UPS এর দ্বারা কম্পিউটার কতক্ষণ চালানো যাবে সেটা নির্ভর করে   ব‍্যাটারীর Power Capacity বা watt এর উপর। সাধারণ একটা UPS 15 মিনিট থেকে 30 মিনিট back up দিয়ে থাকে।

iOS কি ? আইওএস সম্পর্কে জানুন

UPS এর কিছু গুরুত্বপূর্ণ পার্টস্

ইউপিএস এর কিছু গুরুত্বপূর্ণ পার্টস রয়েছে। যেগুলোর মধ্যে একটি না থাকলে ইউপিএস অসম্পূর্ণ। ইউপিএস এর পার্টস্ গুলি হল 

1. Rectifier 

2. Switch / Static Bypass

3. Battery 

4. Inverter 

চলুন এগুলো সম্পর্কে বিস্তারিত জেনে নেওয়া যাক।

1. Rectifier

আমরা জানি Rectifier ব‍্যাটারী Charge এর জন্য ব‍্যবহার হয়। UPS এর ক্ষেত্রে এর প্রধান দুটি কাজ ইউপিএস এর ব‍্যাটারীর চার্জ করা এবং AC কে DC তে রূপান্তরিত করা। বিভিন্ন কোম্পানি তাদের তৈরি UPS এ charging এর জন্য আলাদা আলাদা method ব‍্যবহার করে থাকে। যেমন কোন কোম্পানির UPS এ তিন ধাপে charging হয়ে থাকে। প্রথম 90% দ্রুত charging, এরপর বাকি 10% slow Charging হয় এর পর শেষে ব‍্যাটারী full charge হওয়ার পর turn off charger হয়।

2. Switch বা Static Bypass

এটি UPS এর switch হিসাবে কাজ করে। এটা ইউপিএস কে ক্ষতি হওয়া থেকে রক্ষা করে। ইউপিএস এর internal কোন সমস্যা হলে এর সাহায্যে সেটা আটকানো যায়। UPS এর মধ্যে কোন সমস্যা হলে Static Bypass ইউপিএস কে  Automatic বন্ধ করে দেয়। অর্থাৎ Static Bypass ইউপিএস এর Internal কোন component fail হলে ইউপিএস এর ক্ষতি হওয়া থেকে রক্ষা করে।

3. Battery

ব‍্যাটারীই হচ্ছে UPS এর প্রাণ। এই ব‍্যাটারী বিদ্যুৎ সঞ্চয় করে রাখে । পরে সেই বিদ‍্যুৎ কম্পিউটার চালানোর জন্য ব্যবহার করা হয়। এই ব‍্যাটারীর নির্দিষ্ট validity আছে। তারপর সেই ব‍্যাটারীটাকে UPS থেকে খুলে অন্য নতুন ব‍্যাটারী প্রতিস্থাপন করা যায়।

4. Inverter

এটা UPS এর প্রধান অংশ। এর কাজ rectifier এর বিপরীত। এটি DC supply কে AC তে রূপান্তরিত করে। DC Buss থেকে DC কে গ্রহণ করে এরপর rectifier এবং ব‍্যাটারী কে সরবরাহ করে। power failure হয়ে গেলে rectifier কে বিদ্যুৎ প্রদান করে না। 

ইউপিএস কি
ইউপিএস কি ?

UPS এর Full Form কি ?

ইউপিএস এর  সম্পূর্ণ নাম Uninterrupted Power Supply  ( ইউপিএস  ) । ইউপিএস একটা এমন ডিভাইস বিদ‍্যূতের ঘাটতিতে  ব‍্যবহার করা হয়ে থাকে।


 ইউপিএস এর প্রকার / UPS কত প্রকার বা কত ধরনের হয় ?

ইউপিএস অনেক ধরনের হয়। distinct performance এর ভিত্তিতে এর ভাগ  করা হয়ে থাকে। যে common UPS আমরা দেখতে পাই সেই গুলি হল :  

1. Standby 

2. Line lntetractive 

3. Standby online  hybrid 

4. Stand by Ferro 

5. Double conversation  online 

6. Delta Conversion On- line

UPS এর কাজ কি / ইউপিএস ব‍্যবহার করার লাভ

ইউপিএস ব‍্যবহার করলে অনেক সুবিধা পাওয়া যায়। 

১. যে ডিভাইসের জন্য ( বিশেষ করে কম্পিউটার ) UPS ব‍্যবহার করা হয় তার main ইলেকট্রিক cut হলে ডিভাইস টা বন্ধ হয়না নিরন্তর চলতে থাকে। ইউপিএস ওই ডিভাইসকে ইলেকট্রিক Back up প্রদান করে।

২. Main ইলেকট্রিকে over voltage অর্থাৎ বেশি voltage থাকলে ডিভাইসের ক্ষতি হওয়া থেকে রক্ষা করে। 

বুলেট ট্রেন কি ? বুলেট ট্রেন সম্পর্কে জানুন

৩. বিদ‍্যূতের up-down অর্থাৎ ভোল্টেজ কমা বাড়া হলে কম্পিউটার বা যেকোন ইলেকট্রিক device এর ক্ষতি হতে পারে। ইউপিএস ব‍্যবহার করলে করলে UPS এর দ্বারা চালিত ডিভাইসের কোনো ক্ষতি হবে না। তার কারণ main বিদ‍্যূতের voltage এর সাথে কম্পিউটার বা অন্য কোনো ডিভাইসের সরাসরি সম্পর্ক থাকে না। main বিদ‍্যূত ইউপিএসে প্রবেশ করে তারপর UPS normal ভোল্টেজ ডিভাইসে পাঠায়।

৪. Main বিদ্যুৎ Connection এ শর্টসার্কিট হলে UPS ডিভাইসের ক্ষতি হওয়া থেকে রক্ষা করে। এতে UPS এর ক্ষতি হতে পারে কিন্তু এর দ্বারা চালিত ডিভাইসের কোনো ক্ষতি হবে না।

5. বিদ্যুৎ cut হওয়ার 25 মিলি সেকেন্ডের মধ্যেই UPS কম্পিউটার ডিভাইসকে বিদ্যুৎ supply করে থাকে। কম্পিউটার একই অবস্থায় চালু থাকে। তাই বন্ধ হয়না কম্পিউটারের ডাটা loss হয়না।

ভারতের কিছু ইউপিএস উৎপাদন কোম্পানি নাম

1. Intex

2. Artis UPS

3. iBall Nirantara UPS

4. Luminous UPS

5. V-Guard

6. Zebronics

7. Microtech

8. APC

পরিশেষে:–

আমরা যারাই কম্পিউটার ব্যবহার করি তাদের UPS ব‍্যবহার করা প্রয়োজন। ইউপিএস ব‍্যবহার না করলে কম্পিউটার খারাপ হওয়ার সম্ভাবনা খুব বেশি থাকে। কম্পিউটার একটি দামি component কিন্তু UPS এর দাম বেশ কম । মোটামুটি ১৫০০ টাকার মধ্যে ইউপিএস পাওয়া যায়। তাই বুদ্ধিমানের কাজ হল কম্পিউটার চালানোর জন্য সরাসরি ইলেকট্রিক ব‍্যবহার না করে ইউপিএস এর মাধ্যমে চালানো উচিত। এতে দামি কম্পিউটারটার ক্ষতি হওয়া থেকে রক্ষা পাবে।

আমি আজকে আপনাদেরকে UPS সম্পর্কে মোটামুটি ধারণা দেওয়ার চেষ্টা করেছি। ইউপিএস কি ? ইউপিএস কত ধরনের হয় ? UPS ব‍্যবহার করলে কি কি লাভ পাওয়া যায়। সেই সম্পর্কে জানতে পারলেন। আশা করি ইউপিএস সম্পর্কে সঠিক ধারণা দিতে পেরেছি। এই আর্টিকেলটি আপনাদের ভালো লাগে তাহলে আপনারা এই পোস্টটি সকলকে Share করবেন। পোস্টটি কেমন হয়েছে কমেন্ট করে জানাবেন।

Leave a Comment