সোলার প্যানেল সামগ্রীর ব্যবসা কিভাবে করবেন – কিভাবে সৌরবিদ্যুৎ প্যানেল ব্যবসা করা যায়

 আমরা বাড়িতে, অফিসে বা বিভিন্ন কারখানায় ইলেকট্রিকের ব‍্যবহার দেখি । ইলেকট্রিক বা বিদ্যুৎ না থাকলে বিভিন্ন কলকারখানা অচল হয়ে পড়বে। আমরা তাপবিদ্যুৎ বা জলবিদ্যুৎ এর কথা শুনে এসেছি। কিন্তু আজ আপনাদের সৌরবিদ্যুতের সম্পর্কে আলোচনা করব। এর সুবিধা কি জানতে পারবেন। প্রতি বছর বিভিন্ন ধরনের ঝড় এবং বিপর্যয়ে বিদ্যুৎ সংযোগ বিচ্ছিন্ন হয়। প্রতি বছর আমফান, ফণী, ইয়াস অথবা বিভিন্ন ঘূর্ণিঝড়, অধীক বর্ষণে বিদ্যুৎ সংযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে যায়। এর জন্য ব্যহত হয় পানীয় জলের যোগান। 

সোলার প্যানেল সামগ্রীর ব্যবসা
সোলার প্যানেল

যাদের জেনারেটর আছে তারা পানীয় জলের জন্য অভাবের সম্মুখীন হয় না। এর বিদ্যুৎ এর দ্বারা পাম্প থেকে জল তুলতে পারে। কিন্তু একটা জেনারেটর কেনা বি ব‍্যবহার করা সবার সাধ‍্যের মধ্যে নেই। কারণ এতে তেল খরচ করতে হয়। বিদ্যুৎ না থাকলে পাম্পের জল তুলার জন্য জেনারেটর ব্যবহার করা খুবই ব্যয় সাপেক্ষ। এই সমস্যার সমাধানের জন্য সবচেয়ে কার্যকরী ভূমিকা পালন করতে পারে সৌরবিদ্যুৎ। বর্তমানে এর ব্যবহার ব্যাপক প্রসার লাভ করেছে। কেবলমাত্র পানীয় জলের সমস্যায় নয়, বিদ্যুৎ না থাকলে অনেক সমস্যার সম্মুখীন হতে হয়। 

আগেকার দিনে মানুষ বিদ্যুৎ ছাড়াই সব কাজ করতে পারত । বাড়িতে কেরোসিনের ল্যাম্পের আলোতেই পড়াশোনা করেছে, গরমে হাত পাখা ব্যবহার করেই কাটিয়েছে। কিন্তু বর্তমানে মানুষ ইলেকট্রিক ছাড়া চলতে অভ‍্যস্ত নয়। ইলেকট্রিক ছাড়া বাড়িতে ব্যবহার করা ইলেকট্রিক সামগ্রী যেমন বাল্ব, ফ‍্যান, ফ্রীজ কিছুই চালানো সম্ভব নয়। তাই এইগুলো ব্যবহার করার জন্য বাড়িতে সৌরবিদ্যুৎ প‍্যানেল বসিয়ে নিলেই এই নিয়ে কোন চিন্তা করতে হবে না। ভবিষ্যতের কথা ভেবেই এখন থেকেই সৌর শক্তিকে প্রাধান্য দেওয়া উচিৎ।

সৌরবিদ্যুৎ ব্যবহারের সুবিধা গুলো কি কি ?

তাপ বিদ্যুৎ উৎপাদন করার জন্য প্রতিদিন প্রচুর পরিমাণে কয়লার ব্যবহার হয়। এতে দিন দিন কয়লা কমে আসছে। তাই আগে থেকেই সৌর বিদ্যুৎ ব্যবহার করার উৎসাহ দেওয়া যেতে পারে। অন্য দিকে সৌরশক্তি কমে যাওয়ার কোন্ আশঙ্কা নেই। সৌরশক্তি ব্যবহারে পরিবেশ দূষণের কোন সমস্যা নেই। কিন্তু কয়লা থেকে বিদ্যুৎ উৎপাদন করার সময় প্রচুর পরিমানে কার্বন ডাই অক্সাইড বাতাসের সাথে মিশে যায়। এতে অক্সিজেনের অভাব ঘটায় এবং পরিবেশ দূষিত হয়। 

সৌরবিদ্যুতের সাহায্যে আলো জ্বালানো যায়, ফ্যান, ফ্রিজ, ইস্ত্রি, পাম্প সব কিছুই চালানো যায়। প্রচলিত বিদ‍্যূতের পরিবর্তে সৌরবিদ্যুৎ ব্যবহার করা যায়। প্রচলিত বিদ্যুৎ এর দাম প্রতিনিয়ত বাড়তেই আছে। কিন্তু সৌরবিদ্যুতের জন্য বাড়িতে একটি প‍্যানেল বসিয়ে নিলেই বিদ্যুৎ জনিত অনেক সমস্যার সমাধান হবে। 

কোন কোন সময় ঘূর্ণিঝড় বা অতিরিক্ত বৃষ্টি হওয়ার কারণে বিদ্যুৎ সংযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে যায়। এই ক্ষেত্রে সৌরবিদ্যুৎ খুবই উপকারী। কেবলমাত্র বাড়ির ইলেকট্রিক সামগ্রী ব্যবহারের জন্যই নয়, কৃষি ক্ষেত্রেও সৌরবিদ্যুৎ ব্যবহার করা যায়। জমি জল সেচের জন্য পাম্প চালাতে সৌরবিদ্যুৎ ব্যবহার করা যায়।

সৌরবিদ্যুৎ কি ? 

সৌর বা সূর্যের তাপের সাহায্যে উৎপাদিত হওয়া বিদ্যুৎ কে সৌরবিদ্যুৎ বলে। সৌরশক্তির সাহায্যে ব্যাটারি চার্জ হয়। যত ইউনিট বিদ্যুৎ উৎপাদনের দরকার সেই ক‍্যাপাসিটির ব্যাটারি এবং সোলার প্যানেল দিয়ে তৈরি করা যায়। এর সাহায্যে বাড়ির বিদ্যুৎ সরবরাহ থেকে পাম্প চালানোও সম্ভব। সূর্য থেকে যে শক্তি সরাসরি পৃথিবীতে আসে সেই Energy বা শক্তি থেকে বিভিন্ন প্রযুক্তিতে একে বিদ্যুৎ এ রূপান্তরিত করা হয়। ফোটোভোল্টিক প‍্যানেল, সৌর হিটার, সোলার থার্মাল এর মাধ্যমে সৌর শক্তি ব্যবহার করার জন্য বিদ্যুৎ-এ রূপান্তরিত হয়। 

সৌর শক্তির সাহায্যে বিদ্যুৎ উৎপাদন এটি এমন একটি পরিকল্পনা যা কোন দিন শেষ হওয়ার নয়। এই সূর্যের তাপ থেকে বিদ্যুৎ উৎপাদন খূবই সাশ্রয়ী। যেকেও বাড়িতে বিদ্যুৎ উৎপাদন করে বাড়ির বিদ্যুৎ-এর ঘাটতি পূরণ করতে পারে। বাড়ির চাহিদা অনুযায়ী সোলার প্যানেল বসিয়ে বিদ্যুৎ উৎপাদন করা যায়।

সৌরবিদ্যুৎ একটি Renewable energy যা অক্ষয় শক্তি। অর্থাৎ এই শক্তির কোন ক্ষয় নেই। যতদিন সূর্য রয়েছে ততদিন এই বিদ্যুৎ সহজেই উৎপাদন করা যাবে। যতই বিদ্যুৎ উৎপাদন করা যাক না কেন এই energy এর কোন ঘাটতি হবে না। সৌর শক্তির সাহায্যে বিদ্যুৎ উৎপাদন পরিবেশের কোন ক্ষতি করে না। এটি অসীমিত । সৌর শক্তির মাধ্যমে বিদ্যুৎ উৎপাদনের কোন limit নেই। যত ইচ্ছা বিদ্যুৎ উৎপাদন করা যায়।

সোলার এনার্জি কত প্রকারের – সৌরশক্তির সাহায্যে উৎপাদিত বিদ্যুৎ কি কি ?

সোলার প্যানেল বসিয়ে সূর্যের সাহায্যে বিদ্যুৎ উৎপাদন বেশ লাভজনক। কোন কোন সময় প্রচলিত বিদ্যুৎ এর ঘাটতি হলে তা পূরণ করার জন্য সোলার এনার্জি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করতে পারে। আমাদের দেশে সোলার প্যানেল বসিয়ে বিদ্যুৎ উৎপাদন ধীরে ধীরে জনপ্রিয়তা অর্জন করছে। এটি বেশ সাশ্রয়ী। এর সোলার প্যানেল বসানোর পর বিদ্যুৎ উৎপাদন করার জন্য আলাদা খরচ করতে হয় না। সূর্যের তাপের সাহায্যে বিদ্যুৎ উৎপাদন হয়ে থাকে।সোলার এনার্জি বিভিন্ন ধরনের হয় । কিন্তু প্রধানত একে পাচ ভাগে ভাগ করা যায়। 

১. ফোটোভোল্টিক সোলার এনার্জি

২. সোলার পাওয়ার প্লান্ট

৩. প‍্যাসিভ সোলার হিটিং

৪. সোলার কুলিং সিস্টেম

৫. সোলার ওয়াটার হিটিং সিস্টেম

উপরোক্ত সোলার এনার্জি নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করা হল।

1. ফোটোভোল্টিক সোলার এনার্জি/Photovoltaic Solar Energy

ফোটোভোল্টিক সোলার এনার্জি একটা সাধারণত সোলার সেল সিস্টেম নামে পরিচিত। এটি সরাসরি সূর্যের তাপে বিদ্যুৎ উৎপাদন করে। ঘড়ি, ক‍্যালকুলেটর সৌরশক্তির সাহায্যে চার্জ হয়। সোলার প্যানেলের মাধ্যমে বিদ্যুৎ উৎপাদনের জন্য এর ব্যবহার করা হয়। এর ব্যবহার সোলার সেলের জন্য ব্যবহার হয়ে থাকে।

2. সোলার পাওয়ার প্ল‍্যান্ট/Solar Power Plant

সোলার পাওয়ার প্ল‍্যান্টের ব্যবহার হয় বড় বড় Industrial কারখানার কাজে। সূর্যের কিরণের মাধ্যমে সরাসরি বিদ্যুৎ উৎপাদন করা হয়। এর ব্যবহার থার্মাল পাওয়ার হিসেবে হয়। চারিদিকে কাচ লাগিয়ে সূর্য কিরণ একত্রিত করে বিদ্যুৎ উৎপাদন করা হয়।

3. প‍্যাসিভ সোলার হিটিং/Passive Solar Heating

প‍্যাসিভ সোলার হিটিং এটি অনেক পুরোনো সোলার এনার্জি সিস্টেম। এর ব্যবহার বাড়িতে অথবা অফিসে হয়ে থাকে। শীতের সময় ঘর গরম রাখার জন্য ব্যবহার হয়। 

4. সোলার কুলিং সিস্টেম/Solar Cooling system

সোলার কুলিং সিস্টেম এর ব্যবহার করা হয় সূর্যের কিরণের মাধ্যমে ঠান্ডা করার কাজে। যেমন রেফ্রিজারেটর, এয়ার কন্ডিশনারে ব্যবহার করা হয়। এর সাহায্যে তাপ কম করা হয়।

5. সোলার ওয়াটার হিটিং সিস্টেম/Solar Water Heating system

সোলার ওয়াটার হিটিং সিস্টেম সরাসরি সূর্য কিরণে জল গরম করে এবং একে বিদ্যুৎ শক্তিতে রূপান্তরিত করা হয়। এর ব্যবহার বাড়ির জল গরয করা এবং ওয়াশিংমেসিন ইত্যাদি তে গরম  জলের ব্যবহার করা হয়।

সৌরবিদ্যুৎ সামগ্রীর ব্যবসা কিভাবে করবেন ?

প্রশিক্ষণ নেওয়া থাকলে সৌরবিদ্যুৎ নিয়ে বিভিন্ন ধরনের ব্যবসা করা যায়। পশ্চিমবঙ্গের কলকাতায় ‘সানি রে সলিউশন’ নামে একটি সংস্থা সৌরবিদ্যুৎ সংক্রান্ত প্রশিক্ষণ দিয়ে থাকে। এটি একটি কেন্দ্রীয় সরকার অনুমোদিত সংস্থা। এই সংস্থাটি মূলত সৌর প‍্যানেল ইনস্টলেশন এবং মেরামত করার কাজ করে। এই সংস্থাটি প্রশিক্ষণ দেওয়ার পাশাপাশি সৌরবিদ্যুতের বিভিন্ন সামগ্রী তৈরি করে থাকে। এদের কাছ থেকে ডিলারশিপ বা ডিস্ট্রিবিউশনশিপ নিয়ে ব্যবসা করার সুযোগ রয়েছে। প্রচলিত বিদ্যুৎ এর নিয়মিত দাম বৃদ্ধি এবং বিদ্যুৎ হীন অবস্থায় সমাধান সৌরবিদ্যুতের চাহিদা বাড়িয়ে তুলেছে।

নতুন ব্যবসায়ীদের জন্য এই সংস্থাটি কিছু সুযোগ সুবিধা রেখেছে। যাদের ব্যবসা করার মতো টাকা নেই তারা এই সংস্থার সহযোগিতায় ব্যবসা করতে পারেন। এখান থেকে বেসিক ও এডভান্স প্রশিক্ষণের পর সকল ছাত্ররা কোন নিজস্ব বিনিয়োগ ছাড়াই সৌরবিদ্যুৎ উৎপাদনের বিভিন্ন সামগ্রীর সোলার প্যানেল ইনস্টলেশনের ব্যবসা করতে পারে। তবে ব্যবসার লাভের কিছু অংশ সংস্থাটিকে দিতে হবে। অর্থাৎ সংস্থাটির সহযোগী হয়ে ব্যবসা করতে হবে।

কেউ যদি মনে করে তার নিজের ব্যবসা করার মতো টাকা জোগাড় হয়েছে। একক ভাবে ব্যবসা করতে পারবে তাহলে সেটা করতে পারে। এক্ষেত্রে এখানকার ছাত্রদের দুটি সুবিধা। প্রথমত যারা নিজস্ব পুজি লাগিয়ে ব্যবসা করতে পারবেনা তারা এই সংস্থার সহযোগী হয়ে ব্যবসা করতে পারবে। দ্বিতীয়ত ব্যবসা করে অভিজ্ঞতা অর্জন করতে পারবে।

প্রশিক্ষণ:

কোলকাতার ‘সানি রে সলিউশন’ নামে একটি সংস্থায় প্রশিক্ষণ প্রদান করে থাকে। এখানে দুটি কোর্স করিয়ে থাকে। একটি বেসিক এবং অন্যটি এডভান্স। বেসিক কোর্সটি হল ১. এন্টারপ্রেনারশিপ এন্ড স্কিল ডেভেলপমেন্ট প্রোগ্রাম অন রিনিউয়েবল এনার্জি ( বেসিক)। কোর্সের সময়সীমা 2 সপ্তাহ এবং কোর্স ফি 4500 টাকা। বিজ্ঞান শাখায় উচ্চমাধ্যমিক পাস ছাত্র এই কোর্সে ভর্তি হতে পারে।

২. এন্টারপ্রেনারশিপ এন্ড স্কিল ডেভেলপমেন্ট প্রোগ্রাম অন রিনিউয়েবল এনার্জি ( এডভান্স ) কোর্সটির সময়সীমা 1 মাস এবং কোর্স ফি 7500 টাকা। ইলেক্ট্রিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং এর ডিগ্রি বা ডিপ্লোমা অথবা সমতুল্য যোগ্যতা থাকলে এই কোর্স করতে পারবে। কোর্স কিস্তিতে দেওয়ার সুবিধা আছে। এই প্রতিষ্ঠানের সব কোর্স অল ইন্ডিয়া স্কিল ডেভেলপমেন্ট অর্গানাইজেশন এর স্বীকৃত।

প্রতিষ্ঠানটির ঠিকানা: 584, এমবি রোড, বিরাটী ( বিগ বাজারের বিপরীতে )

পরিশেষে: 

সৌরবিদ্যুৎ বা সোলার এনার্জি এখনকার দিনে খুবই কার্যকারী প্রমাণিত হয়েছে। দিন দিন এর চাহিদা বেড়েই চলছে প্রচলিত বিদ্যুৎ এর ঘাটতি পুরন করতে পারে এই সোলার এনার্জি। বর্তমানে অনেকেই বাড়িতে সোলার প্যানেল বসিয়ে সৌরবিদ্যুৎ ব্যবহার করছে। তাই সৌরবিদ্যুতের প্রশিক্ষণ নিয়ে ব্যবসা করা বেশ লাভজনক । 

আজকের এই আর্টিকলে সোলার এনার্জি কি ? সোলার প্যানেল সামগ্রীর ব্যবসা কিভাবে করবেন জানান হল। এই পোস্টটি কেমন হয়েছে জানাবেন। সৌরবিদ্যুৎ সম্পর্কে কোন পরামর্শ দেওয়ার থাকলে জানাবেন। আর এই পোস্টটি বন্ধুদের মাঝে শেয়ার করবেন।

ধন্যবাদ

Leave a Comment